Pathokforum

পরিচালক, বি আই ডব্লিউ টি এ
প্রতিষ্ঠাতা, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পাঠক ফোরাম

প্রতিষ্ঠাতার বক্তব্য

নানা চড়াই উৎড়াই পেরিয়ে সৌহার্দ্য সমৃদ্ধি সম্ভাবনার জাগরণে আত্মপ্রত্যয়ী দক্ষ আলোকিত মানবসম্পদ গড়ে তোলার তীব্র উম্মাদনা নিয়ে ধীরে ধীরে পথ চলায় শীঘ্রই তিন যুগ অতিক্রম করতে যাচ্ছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পাঠক ফোরাম ৷ 

ছাত্র জীবনের শ্রেষ্টতম সময় বিশ্ববিদ্যালয় জীবন ৷ এ সময়টাতে চেতনা হয় পরিপূর্ণ, শাণিত । বুদ্ধিমত্তায় আসে বিজ্ঞতার সুস্পষ্ট ছাপ। আসে জীবনের সঠিক উপলব্ধি ও সিদ্ধান্ত গ্রহণের অপরিমেয় যোগ্যতা। জীবন তারুণ্যের কাছে যে মুক্ত চিন্তা, স্বচ্ছ চিন্তা দাবি করে, বিশ্ববিদ্যালয় হচ্ছে সেই মুক্ত জ্ঞান চর্চা ও মুক্ত চিন্তার কেন্দ্রভূমি বা লালন ক্ষেত্র। দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ বুদ্ধিজীবী ও উচ্চ শিক্ষিত সমাজ তাদের তারুণ্য দিয়ে, মেধা দিয়ে, গবেষণালব্ধ ফসল দিয়ে, সুশাসন ও সুনীতির ধারক-বাহক হয়ে দেশকে সভ্যতা তথা উন্নয়নের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবে— নিঃসন্দেহে বিশ্ববিদ্যালয়ের নিকট এটিই জাতির প্রত্যাশা। অথচ আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় গুলোতে এখনো সনাতন পদ্ধতিতে পাঠদান চলছে। কর্মজীবনে যার প্রয়োগ নেই বললেই চলে। চলছে অসুস্থ ও  সহিংস রাজনীতি। বিশেষ করে আশির দশকের শেষের দিকে এই সহিংস রাজনীতির করাল গ্রাসে নিপতিত হয়েছিল এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস। 

 

বোমাবাজি অস্ত্রের ঝনঝনানি ও নানা অনৈতিক কাজে কলঙ্কিত হয়েছিল মতিহারের এই সবুজ চত্বর। ছাত্র এবং শিক্ষক সকলে অনিশ্চিত ভবিষ্যতের দিকে এক চরম উৎকণ্ঠা ও ভয় নিয়ে দিন কাটাচ্ছিল। ঠিক এমনই এক পরিস্থিতিতে সম্পূর্ণ দল নিরপেক্ষ অবস্থান থেকে একাডেমিক শিক্ষার পাশাপাশি সাধারণ জ্ঞান চর্চা, তথ্য প্রযুক্তি কেন্দ্রিক প্রশিক্ষণ,  মনন চর্চার বিকাশের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদেরকে নৈতিক মূল্যবোধ সম্পন্ন পূর্ণাঙ্গ মানুষ হিসেবে গড়ে তোলা সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সার্বিক পরিস্থিতি উন্নয়নের ব্রত নিয়ে ১৯৮৯ সালের ৪ঠা এপ্রিল রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পাঠক ফোরাম প্রতিষ্ঠিত হয়। 

ফোরাম তার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য অর্জনে কতটা সফলতা অবশ্যই আলোচ্য এবং বিবেচ্য বিষয়। সুদীর্ঘ ৩৪ বছরের বিবর্তনে ফোরামের  কর্মকাণ্ড মূল্যায়নে এতোটুকু বলা যায় যে জ্ঞানেগুণে আচার-আচরণে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি উল্লেখযোগ্য অংশকে যথার্থ মানবসম্পদ হিসেবে গড়ে তোলা সহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইমেজ কে পজিটিভলি  জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তুলে ধরে ফোরাম ইতিমধ্যে ছাত্র-শিক্ষক-অভিভাবক মহলে ব্যাপক আস্থাশীল শুভেচ্ছায় পরিচিতি লাভ করেছে। ফোরামকে আজকের এই অবস্থানে আনতে যারা অবদান রেখেছেন, ফোরামের সাবেক সম্মানিত প্রধান পৃষ্ঠপোষকগণ, প্রধান উপদেষ্টাগণ, উপদেষ্টাগণ সহ সাবেক কর্মকর্তাগণকে শ্রদ্ধা ভরে স্মরণ করছি। 

পরিশেষে পাঠক্রমের সর্বোচ্চ উন্নতি এবং সমৃদ্ধি কামনা করছি এবং বর্তমান তরুণ প্রজন্ম পাঠক ফোরামকে নিজেদের মাঝে লালন করে নিজেদেরকে দেশের দক্ষ মানবসম্পদ হিসেবে গড়ে তুলুক এই কামনা করছি।